Genaral Rules & Regulations

কলেজে কাজের সময়ঃ

সোম থেকে শুক্রবার সকাল ১০.৩০ মি. থেকে বিকাল ৪.৫৫ মি. পর্যন্ত। শনিবার সকাল ১০.৩০ মি. থেকে দুপুর ২.৩৫ মি. পর্যন্ত।
টিউশান ফি দেওয়ার প্রক্রিয়াঃ প্রতি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যে ঐ মাসের টিউশান ফি অবশ্যই জমা দিতে হবে। ৬ মাসের বেতন বাকি থাকলে সংশ্লিষ্ট ছাত্রছাত্রীরা নাম উপস্থিতির খাতা থেকে বাদ দেওয়া হবে। সেক্ষেত্রে পুনরায় নাম নথিভুক্ত করণের জন্য ৫ টাকা এবং বিলম্বের জন্য প্রতি মাসে ৫ টাকা জরিমানা ধার্য করা হবে।


অর্থ আদান প্রদানের সময়ঃ

সোম – শুক্র বেলা ১১ টা থেকে ২ টা পর্যন্ত।

অধ্যক্ষ / ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের সঙ্গে ছাত্রছাত্রীদের সাক্ষাতকারের সময়ঃ

বেলা ১.০০ টা থেকে ২.৩০ টা পর্যন্ত।

যোগাযোগের সময়ঃ

প্রতিদিনবেলা ১ টা – ২.৩০ মি. পর্যন্ত (খুব প্রয়োজনে এই বিধি শিথিলযোগ্য)।

পরিচয়পত্রঃ

কলেজ দ্বারা নির্ধারিত পরিচয়পত্র (ফোটোসহ) সকল ছাত্রছাত্রীকে সব সময় কাছে রাখতে হবে। কলেজে প্রবেশের সময় এবং প্রয়োজনে তা দেখাতে হবে। পরিচয়পত্র নষ্ট হয়ে গেলে বা হারিয়ে গেলে তৎক্ষণাৎ অধ্যক্ষ/ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের গোচরে আনতে হবে এবং একটি নতুন পরিচয়পত্রের জন্য দরখাস্ত জমা দিতে হবে।
এই কলেজ থেকে অন্য কলেজে চলে গেলে বা পড়া ছেড়ে দিলে পরিচয়পত্রটি কলেজে ফেরত দিতে হবে।

অন্যান্য নিয়মাবলী

১। প্রত্যেক ছাত্রছাত্রীকে বাধ্যতামূলকভাবে ক্লাসে ৭৫% উপস্থিতির হার বজায় রাখতে হবে।
২। কলেজের সমস্ত রকম পরীক্ষায় বসা ও কৃতকার্য হওয়া বাধ্যতামুলক।
৩। কলেজ আয়োজিত বিভিন্ন আলোচনা সভা ও বিভিন্ন দিবস উদযাপনে ছাত্রছাত্রীদের অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক।
৪। কলেজ ক্যাম্পাস ও ক্লাসের মধ্যে শৃঙ্খলা ও নীরবতা বজায় রাখতে হবে।
৫। ফাঁকা ক্লাসরুমে বসে গল্প করা অথবা চিৎকার করা কিংবা অন্য কোন প্রকার বিধি বহির্ভূত কাজকর্ম কঠোরভাবে নিষিদ্ব।
৬। গ্রন্থাগারে, ক্লাসঘরে কিংবা ল্যাবরেটোরিতে মোবাইল ফোন ব্যবহার করা যাবে না। কলেজ ক্যাম্পাসে বিনোদনের মাধ্যম হিসেবে মোবাইল ফোন ব্যবহার করা যাবে না।
৭। মার্কশিট/অ্যাডমিট কার্ড/ অন্যান্য নথি প্রত্যয়ন(Attestation) –এর জন্য অফিসের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে।
৮। ছাত্রছাত্রীদের পক্ষে কলেজের নোটিশ বোর্ডটি প্রতিদিন প্রত্যক্ষ করা আবশ্যিক।
৯। কলেজের সম্পত্তি রক্ষা করা ছাত্রছাত্রীদের অবশ্য কর্তব্য।
১০। কলেজের দেওয়াল পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।
১১। কলেজ কতৃপক্ষ যখন যেমন নির্দেশিকা জারি করবে ছাত্রছাত্রীকে তা মান্য করতে হবে।
১২। ছাত্রছাত্রীদের বেতন মুকুব/বৃত্তি প্রদানের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ যেসব বিধি প্রণয়ন করবে, সেটিই হবে চূড়ান্ত। বেতন মুকুবের আবেদন করার পূর্বশর্ত হল ক্লাসে ৭৫% উপস্থিতি।
১৩। ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখা এবং শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মীদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল আচরণ প্রকাশ করা প্রতিটি ছাত্রছাত্রীরা অবশ্য পালনীয় কর্তব্য।